চিটাগাং ভাইকিংস’র শুভ সূচনা

0

স্পোর্টস ডেস্কঃ চিটাগাং ভাইকিংস’র শুভ সূচনা করেছে। বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) ষষ্ঠ আসরের উদ্বোধনী ম্যাচে ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন রংপুর রাইডার্সকে ৩ উইকেটে হারিয়ে শুভ র্সচনা করল চিটাগং ভাইকিংস।

লক্ষ্য মাত্র ৯৯ রান, সহজেই এই রান টপকে যাওয়ার কথা। বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) উদ্বোধনী দিনে প্রথম ম্যাচে এই রান টাপকাতেও বেশ হিমশিম খেতে হয়েছিল চিটাগং ভাইকিংসের। গতবারের চ্যাম্পিয়ন রংপুর রাইডার্সের বিপক্ষে ম্যাচে অতি কষ্টে তিন উইকেটে জিতেছে মুশফিকুর রহিমের দল।

আজ শনিবার (৫ জানুয়ারী) মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত ম্যাচের বোলিং বান্ধব উইকেটে কোনো দলের ব্যাটসম্যানরাই খুব একটা সুবিধা করতে পারেনি। তবে মোহাম্মদ শেহজাদ (২৭) ও মুশফিকুর রহিম (২৫) দারুণ দুটি ইনিংস খেলে চিটাগংয়ের জয়ে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখেন।

পুঁজি কম হলেও রংপুর বোলাররা চেষ্টা করেছিলেন দলের হারের ব্যবধান কমাতে। বিশেষ করে মাশরাফি বিন মুর্তজা চার ওভার বল করে ২৪ রান দিয়ে উইকেট তুলে নেন। আর শফিউল ইসলাম ও ফরহাদ রেজা একটি করে উইকেট পান।

এর আগে চিটাগং বোলারদের নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ে একেবারেই বেহাল দাশা হয়েছিল রংপুর ব্যাটসম্যানদের। এক রবি বোপারা ছাড়া কোনো ব্যাটসম্যানই পারেননি নিজের নামের প্রতি সুবিচার করতে। বোপারা খেলেন ৪৪ রানের দরুণ একটি ইনিংস।

এক সময় তো মানে হয়েছিল বিপিএলের সর্বনিম্ন স্কোরও করতে পারবে না রংপুর। দলীয় মাত্র ৩৫ রানে সাত উইকেট হারিয়ে ফেলেছিল তারা।

রংপুর ব্যাটসম্যানদের সামনে ভয়ঙ্কর হয়ে উঠেছিলেন রবার্ট ফ্রাইলিঙ্ক। চার ওভার বল করে চার উইকেট তুলেন নেন তিনি। দারুণ বল করেছেন তরুণ বাংলাদেশি স্পিনার নাঈম হাসান, তিনি নেন দুই উইকেট।

তবে এই ম্যাচের অন্য রকম একটি আকর্ষণ, প্রথমবার সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়ে মাঠে নেমেছেন মাশরাফি। নড়াইল-২ আসন থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হওয়ার পর আজই প্রথম মাঠে নামেন তিনি। তিনি বিপিএলে রংপুর রাইডার্সের অধিনায়ক।

এই ম্যাচে আরেকটি চমক নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে পাঁচ বছর পর বিপিএলে ফিরেছেন সাবেক অধিনায়ক মোহাম্মদ আশরাফুল। ম্যাচ ফিক্সিংয়ের কারণে নিষিদ্ধ ছিলেন তিনি। তবে ব্যাটিংয়ে নেমে খুব একটা সুবিধা করতে পারেননি। ৫ বল খেলে মাত্র ৩ রান করেন তিনি।

চিটাগাং ভাইকিংস একাদশঃ
মোহাম্মদ শাহজাদ, ক্যামেরন ডেলপর্ট, মোহাম্মদ আশরাফুল, মুশফিকুর রহীম, মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত, সিকান্দার রাজা, রবি ফ্রাইলিংক, নাঈম হাসান, সানজামুল ইসলাম, আবু জায়েদ রাহী এবং সৈয়দ খালেদ আহমেদ।

রংপুর রাইডার্সঃ

আলেক্স হেলস, মোহাম্মদ মিঠুন, রাইলি রুশো, মেহেদি মারুফ, রবি বোপারা, বেনি হাওয়েল, ফরহাদ রেজা, মাশরাফি বিন মর্তুজা (অধিনায়ক), সোহাগ গাজী, নাজমুল ইসলাম, শফিউল ইসলাম।

এ বিভাগের আরও খবর

Leave A Reply

Your email address will not be published.