নতুন বিরতিহীন ট্রেন‘বনলতা এক্সপ্রেস’ উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী

0

সিটি নিউজ ডেস্ক : নতুন বিরতিহীন আন্তঃনগর ট্রেন ‘বনলতা এক্সপ্রেস’র উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রাজশাহী-ঢাকা রুটের। বৃহস্পতিবার সকালে ১১ টা ২ মিনিটে গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সে ট্রেনটির উদ্বোধন করেন তিনি।

ট্রেনটি রাজশাহী থেকে সকাল ৭টায় ছেড়ে ঢাকায় পৌঁছাবে বেলা ১১টায়। আবার একইদিন ট্রেনটি রাজশাহীর উদ্দেশে ঢাকা ছাড়বে দুপুর দেড়টায়। রাজশাহী রেলস্টেশনে পৌঁছাবে বিকেল সাড়ে পাঁচটায়।

নতুন এ ট্রেনটিতে থাকছে ইন্দোনেশিয়া থেকে আমদানি করা ১২টি নতুন বগি। এর মধ্যে শোভন চেয়ারের বগি ৭টি, যার আসন সংখ্যা ৬৬৪টি। দু’টি এসি বগিতে আসন থাকবে ১৬০ টি। ট্রেনটিতে মোট আসন সংখ্যা ৯৪৮। ভারত থেকে ২০১৩ সালে আমদানি করা দু’টি ইঞ্জিন দিয়ে চলাচল করবে ট্রেনটি।

এর আগে মঙ্গলবার দিনগত রাতে ঈশ্বরদী জংশন থেকে রাজশাহী রেলওয়ে স্টেশনে পৌঁছায় বনলতা এক্সপ্রেস। ট্রেনটি এখন স্টেশনেই অবস্থান করছে। সেখান থেকে বৃহস্পতিবার সকাল ১১টা ১০ মিনিটে ঢাকার পথে ছুটবে বিরতিহীন এই ট্রেন। এখন চলছে শেষ মুহূর্তের সাজসজ্জা।

এদিকে দেশের প্রথম ও সর্বাধুনিক হাইস্পিড ট্রেন হচ্ছে ‘বনলতা এক্সপ্রেস’। বনলতায় থাকছে ইন্দোনেশিয়া থেকে আমদানি করা ১২টি নতুন বগি বা কোচ।কিন্তু রাজশাহী-ঢাকা রুটের জন্য এই একজোড়া ট্রেন পেয়েছে পুরোনো দুটি ইঞ্জিন। এগুলো ২০১৩ সালে ভারত থেকে আমদানি করা। এই ইঞ্জিন ঘণ্টায় সর্ব্বোচ্চ গতিবেগ ৯০ থেকে ৯৫ কিলোমিটার।

আর বনলতার সর্বাধুনিক হাইস্পিড কোচের গতিবেগ ঘণ্টায় ১৪০ কিলোমিটার। এতে শেষ পর্যন্ত প্রত্যাশিত গতিবেগ উঠবে না রাজশাহী-ঢাকা রুটের প্রথম ও একমাত্র বিরতিহীন এই ট্রেনের। নতুন ইঞ্জিন ও মজবুত ট্র্যাক পেলে এটি প্রতি মিনিটে আড়াই কিলোমিটার পথ পাড়ি দিতে সক্ষম হতো। ৩৪৩ কিলোমিটার পথ পাড়ি দিয়ে ট্রেনটি ৪ থেকে সাড়ে ৪ ঘণ্টায় পৌঁছাতো গন্তব্যে।

রেলপথমন্ত্রী নুরুল ইসলাম সুজন জানান, ট্রেনটি পশ্চিমাঞ্চলবাসীর জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিশেষ উপহার।

পুরনো ইঞ্জিনের বিষয়ে তিনি বলেন, পুরনো ইঞ্জিনেই ‘বনলতা এক্সপ্রেস’ উদ্বোধন করা হচ্ছে। এর গতিবেগ শুরুতে ঘণ্টায় ১৪০ কিলোমিটার না হলেও নতুন ইঞ্জিন যুক্ত করার পর ট্রেনটির গতিবেগ যথাযথ ওঠানো সম্ভব হবে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক রেলওয়ে সংশ্লিষ্ট এক কর্মকর্তা জানান, ইন্দোনেশিয়া থেকে আনা অত্যাধুনিক যাত্রীবাহী কোচ বনলতা এক্সপ্রেসে যুক্ত করা হয়েছে।

১৪০ কিলোমিটার গতিসম্পন্ন এসব কোচ নতুন ইঞ্জিনের অভাবে নির্ধারিত গতি নিয়ে ছুটতে পারবে না। ৯০-১০০ কিলোমিটার গতিতেও ট্রেনটি চালানো সম্ভব হবে না।

দুটি পুরনো ইঞ্জিন দিয়ে ট্রেনটি চালানোর সিদ্ধান্ত হয়েছে। নতুন ইঞ্জিন ও মজবুত ট্র্যাক পেলে এটি প্রতি মিনিটে আড়াই কিলোমিটার পথ পাড়ি দিতে সক্ষম।

সংশ্লিষ্টরা জানান, ৩৪৩ কিলোমিটারের ঢাকা-রাজশাহী রুট পাড়ি দিতে বনলতা এক্সপ্রেসের ৪ থেকে সাড়ে ৪ ঘণ্টা সময় লাগবে। প্রস্তাবিত সময়সূচি অনুযায়ী ট্রেনটি দুপুর ১টা ১৫ মিনিটে ঢাকা থেকে ছেড়ে সন্ধ্যা পৌনে ৬টার মধ্যে রাজশাহী পৌঁছবে।

অন্যদিকে সকাল ৭টায় রাজশাহী থেকে ছেড়ে বেলা ১১টায় ঢাকার কমলাপুরে পৌঁছবে। এ রুটে চলমান আন্তঃনগর ট্রেনগুলোর সময় লাগছে ৭-৮ ঘণ্টা।

এ বিভাগের আরও খবর

Leave A Reply

Your email address will not be published.