নির্বাচনে নৌকার বিরোধীতাকারীদের চিহ্নিত করার নির্দেশ

0

গোলাম সরওয়ার,সিটি নিউজ :  সম্প্রতি চলমান উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে অনেক উপজেলায় নৌকা প্রতীকের সাংসদরাও নৌকার বিরোধীতা করেছেন। ওইসব সাংসদের মধ্যে রয়েছেন মন্ত্রিপরিষদ সদস্যও। নৌকার প্রতিপক্ষ হিসেবে ভূমিকা রেখেছেন স্থানীয় সাংসদ ও পরিবারের সদস্যরা। নির্বাচনে ওই উপজেলায় এমপি বলয়ের আ.লীগ আর তৃণমূল আ.লীগ মুখোমুখি হয়েছে। আর এ মধ্যে প্রায় উপজেলায় ভরাডুবি হয়েছে নৌকার।

দল মনোনীত প্রার্থীদের বিরুদ্ধে যেসব মন্ত্রী ও সংসদ সদস্য অবস্থান নিয়েছিলেন তাদের চিহ্নিত করার নির্দেশ দিয়েছেন দলটির হাইকমান্ড। এ প্রসঙ্গে আ.লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফ বলেছেন, উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে দল মনোনীত প্রার্থীদের বিরুদ্ধে যেসব মন্ত্রী ও সংসদ সদস্যরা অবস্থান নিয়েছিলেন বা নিচ্ছেন, তাদের তালিকা তৈরির নির্দেশ দেয়া হয়েছে। তিনি আরও জানান, চেয়ারম্যান পদে দলীয় প্রতীকের বাইরে যারা নির্বাচন করেছে। আওয়ামী লীগের দায়িত্বশীল কেউ তাদের সহযোগিতা করেছে কি না এবং কারা সহযোগিতা করেছে তাদের তালিকা করার জন্য বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদকদের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। আগামী ৫ এপ্রিল দলের কার্যনির্বাহী সংসদের বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে। বৈঠকে দলের বিদ্রোহী এবং বিদ্রোহীদের পক্ষাবলম্বনকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার সিদ্ধান্ত আসতে পারে।

উপজেলা পরিষদ নির্বাচন নিয়ে রাজনীতিবীদদের তথ্য মতে, স্থানীয় রাজনীতির ত্রাণকর্তা ওই আসনের সাংসদ। জেলা, উপজেলা, পৌরসভা, ইউনিয়ন, ওয়ার্ড সব কমিটিতে তার একক কর্তৃত্ব। জেলা পরিষদ, উপজেলা পরিষদ, পৌরসভা, ইউনিয়ন পরিষদসহ সব নির্বাচনেই সাংসদ পন্থিরাই মনোনয়ন ও নির্বাচিত হন। যারা এমপির মনোনয়নের বিরোধিতা করেছিলেন, অনিশ্চয়তায় পড়ে তাদের রাজনীতি। দল বা সরকারি কর্মকাণ্ডে কোথাও তাদের অবস্থান খুঁজে পাওয়া যায় না। দলসহ সরকারের সুযোগ-সুবিধার সুফল পেয়ে থাকে এমপির পছন্দনীয় লোকজন। তৃণমূলের এ অবস্থা থেকে বেরিয়ে আসতে বিগত কয়েকটি প্রার্থী নির্বাচনে তৃণমূলের মতামতের ভিত্তিতে প্রার্থী চূড়ান্ত করে আসছে কেন্দ্র।

এ বিভাগের আরও খবর

Leave A Reply

Your email address will not be published.