প্রাথমিক থেকে বিশ্ববিদ্যালয় সমন্বিত ভর্তি কার্যক্রম চালু হবেঃ নওফেল

0

সিটি নিউজ ডেস্কঃ শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল বলেছেন, প্রাথমিক থেকে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার সর্বস্তরে সমন্বিত ভর্তি কার্যক্রম চালু করা হবে। আর এই কার্যক্রমে অনেক অগ্রগতিও হয়েছে।

রবিবার (১২ মে) দুপুরে ঢাকা মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষাবোর্ডে ২০১৯-২০২০ শিক্ষাবর্ষে একাদশ শ্রেণির ভর্তি কার্যক্রম উদ্বোধন করেন শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী।

শিক্ষা উপমন্ত্রী বলেন, তাঁরা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি কার্যক্রমেও সমন্বিত ব্যবস্থা চালু করতে চান। অভিভাবক ও শিক্ষার্থীদের অর্থের অপচয় ও বিড়ম্বনা থেকে মুক্তির জন্য সমন্বিতভাবে গুচ্ছভিত্তিক ভর্তি শুরু করতে চান তাঁরা। উচ্চ মাধ্যমিকে গুচ্ছভিত্তিক ভর্তি হতে পারলে বিশ্ববিদ্যালয়ে কেন পারা যাবে না?

মহিবুল হাসান বলেন, একাদশ শ্রেণির ভর্তি কার্যক্রমের মতোই বিশ্ববিদ্যালয়ে সমন্বিত গুচ্ছ পদ্ধতিতে ভর্তি কার্যক্রম চালু করা হবে। এতে করে শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের নির্মম কষ্ট ও ভোগান্তি লাঘব হবে। পাশাপাশি সমন্বিত ভর্তি কার্যক্রম বাস্তবায়ন হলে এই প্রক্রিয়ায় আরও স্বচ্ছতা আসবে।

উপমন্ত্রী বলেন, অনলাইনে সমন্বিত ভর্তি প্রক্রিয়া বাস্তবায়নে এখনও যারা বাধা সৃষ্টি করছেন বা নানা প্রতিবন্ধকতা তৈরি করছেন, তাদের সতর্ক করে দেয়া হচ্ছে। কোনো প্রতিবন্ধকতাকে গুরুত্ব দেয়া হবে না বরং তাদের কঠোর হাতে দমন করা হবে।

আগামী শিক্ষাবর্ষ থেকে এ কার্যক্রম চালু করার চিন্তাভাবনা রয়েছে বলেও তিনি জানান।

তিনি আরও বলেন, ইতোমধ্যে আমরা ইউজিসির সঙ্গে এ বিষয় নিয়ে বৈঠক করেছি। তারা একটি প্রতিবেদন তৈরি করেছে। সেখানে বিষয়টি পুঙ্খানুপুঙ্খভাবে তুলে ধরা হয়েছে। আমরা এই প্রতিবেদন পাওয়ার পর বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যদের সঙ্গে বৈঠক করব। কীভাবে এটি বাস্তবায়ন করা যায় তা আলাপ-আলোচনা করেই বিশ্ববিদ্যালয়ে সমন্বিত ভর্তি পদ্ধতি চালু করা হবে।

জোর করে কোনো আইন বা নিয়ম কারও ওপর চাপিয়ে দেয়া হবে না- মন্তব্য করে তিনি বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ে সমন্বিত ভর্তি প্রক্রিয়া চালুকরুণ সকলের দাবি। তাই বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আলোচনা করেই সমন্বিত ভর্তি প্রক্রিয়া কার্যকর করা হবে। এটি আমাদের আমাদের রাজনৈতিক প্রতিশ্রুতি। তাই কোনো বাধাই আমলে নেয়া হবে না।

প্রসঙ্গত এবারও এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফলের ভিত্তিতে একাদশ শ্রেণিতে শিক্ষার্থী ভর্তি করা হবে। ভর্তি-ইচ্ছুক শিক্ষার্থীরা অনলাইনে কমপক্ষে ৫টি ও সর্বোচ্চ ১০টি কলেজ বা সমমানের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের জন্য পছন্দক্রম দিয়ে আবেদন করতে পারবে। (www.xiclassadmission.gov.bd) এই অনলাইনে আবেদন করতে হবে । এ ছাড়া টেলিটকে এসএমএস করেও আবেদন করা যাবে।

আগামী ৩০ জুনের মধ্যে ভর্তির কার্যক্রম শেষ করে ১ জুলাই থেকে ক্লাস শুরু হবে।

এ বিভাগের আরও খবর

Leave A Reply

Your email address will not be published.