বিমানবন্দরের ওয়েটিংরুমে সন্তান মাঝ আকাশের বিমানে মা !

0

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ  শিশু পড়ে রয়েছে টার্মিনালের ওয়েটিংরুমে। মা চড়ে বসলেন বিমানে। মাঝ আকাশে সম্বিত ফিরল মায়ের। তার সন্তান সাথে নেই। চিৎকার শুরু করলেন মা। তা নিয়ে হূলস্থূল কাণ্ড। শেষমেশ বিমান ফিরিয়ে আনতে হল টার্মিনালে।

গত শনিবার সৌদি আরবের জেদ্দা আব্দুল আজিজ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের ঘটনা। সেখান থেকে মালয়েশিয়ার কুয়ালালামপুরের উদ্দেশে রওনা দেয় সৌদি আরব এয়ারলাইন্সের এসভি৮৩২ বিমানটি। খবর আনন্দবাজার পত্রিকা।

বিমানটি উড্ডয়নের কিছু ক্ষণ পর আচমকাই চিত্কার চেঁচামেচি শুরু করে দেন এক মহিলা। বিমানকর্মীদের তিনি জানান, তার সন্তানকে জেদ্দা বিমান বন্দরের টার্মিনালের ওয়েটিংরুমে ফেলে এসেছেন। সন্তানকে  নিয়ে মালয়েশিয়া যাওয়ার কথা তাঁর। সেই মতো টার্মিনালে অপেক্ষা করছিলেন। কিন্তু বিমান ছাড়ার ঘোষণা হতে তাড়াহুড়োয় শিশুটিকে নিতে ভুলে যান তিনি। খেয়াল হয় বিমান উড্ডয়নের পর।

ওই মহিলার কথায় শোরগোল পড়ে যায় বিমানে। পাইলটের কাছেও খবর পৌঁছায়। তড়িঘড়ি এয়ার ট্রাফিক কন্ট্রোলরুমে যোগাযোগ করেন তিনি। বিমান ফিরিয়ে নিয়ে যেতে আর্জি জানান।

জরুরি অবস্থায় বিমান ফিরিয়ে নিয়ে যাওয়ার ঘটনা যদিও নতুন নয়। তবে কোনও যাত্রী নিজের সন্তান ভুলে গিয়েছেন বলে বিমানবন্দরে ফিরে যাওয়ার ঘটনা প্রথম। কী করা উচিত বুঝে উঠতে পারেননি এয়ার ট্রাফিক কন্ট্রোল রুমের কর্মকর্তারাও। তাই বিমান ফেরানো ঠিক হবে কিনা পাইলটের কাছেই জানতে চান তাঁরা। ফের আগাগোড়া পরিস্থিতি বর্ণনা করেন পাইলট। যার পর বিমান ফেরানোর অনুমতি মেলে।

পাইলট এবং এয়ার ট্রাফিক কন্ট্রোল রুমের কর্মকর্তাদের সেই কথোপকথনের একটি অডিও রেকর্ডিং ইতিমধ্যেই সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে গিয়েছে। তাতে মানবিক বোধের পরিচয় দিয়েছেন বলে হাততালি দিয়ে ওই পাইলটকে অভিবাদন জানাতে শোনা গিয়েছে বিমান যাত্রীদের। এই অডিয়ো রোকর্ডিংই ছড়িয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়।

অন্য দিকে, বিমানটি ফিরে এলে ওই মহিলার হাতে শিশুটিকে তুলে দেওয়া হয় বলে বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষের তরফে জানা গিয়েছে। তবে বিমানটি ফের কখন কুয়ালালামের উদ্দেশে রওনা দেয়, তা নিশ্চিত ভাবে জানা যায়নি। ওই সন্তানের মায়ের পরিচয়ও প্রকাশ করা হয়নি।

এ বিভাগের আরও খবর

Leave A Reply

Your email address will not be published.