মাস্কাট রুটে ড্রিমলাইনার বোয়িং চালু করায় প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদঃ এম.এন আমিন

0

জুবায়ের সিদ্দিকীঃ  প্রবাসের মাটিতে নিজ দেশের মানুষকে আপন করে নিয়ে মানবতার সেবায় যিনি দৃষ্টান্ত রেখেছেন তিনি একজন সমাজ সেবক ও সংগঠক এম.এন আমিন। চট্টগ্রামের ফটিকছড়ির কৃতি সন্তান এম.এন আমিন ওমানে আছেন দুই যুগেরও বেশি সময় ধরে। জীবন ও জীবিকার তাগিদে করছেন ব্যবসা। ওমানে তিনি একজন প্রতিষ্ঠিত ব্যবসায়ী। তিনি ওমানস্থ বাংলাদেশ সোস্যাল ক্লাবের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করছেন। অন্যদিকে আজকের সুর্যোদয়ের ওমান ব্যুরো প্রধানের দায়িত্ব পালন করছেন।

গত সপ্তাহে সিটি নিউজ বিডিকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে .এন আমিন বলেন,’ ওমানে বর্তমানে ৮ লক্ষ বাংলাদেশী বসবাস করেন। দুবাইসহ আশপাশ দেশ থেকেও অনেক বাঙ্গালী ওমানে আসেন। অনেক বাংলাদেশী প্রবাসী মারা যান। এর বেশির ভাগ বিভিন্ন রোগ ছাড়াও হার্টএ্যাটাকে মৃত্যুবরন করেন। দুর্ঘটনা বা স্বাভাবিক মৃত্যুর পর লাশ পড়ে থাকে হিমাগারে। লাশ পড়ে থাকার কারন হল, আমাদের বিমান লাশ পরিবহন করে না। বিমান বলছে, মাসকাটে যাতায়াতকারী ফ্লাইট ছোট। যে কারনে লাশ বহন করা সম্ভব হচ্ছে না।

তবে সরকার এব্যাপারে ব্যবস্থা গ্রহন করেছেন। লাশের ব্যাপারটি অত্যন্ত মর্মস্পর্শী। তাদের স্বজনরা আহাজারি করছে। বিমান যদি বড় ফ্লাইট দেয় তবে এই সমস্যার সমাধান হবে। আমরা সোস্যাল ক্লাবের পক্ষ থেকে বিমান প্রতিমন্ত্রী ও সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে বিষয়টি অবগত করেছি। বিমানের ওমান কান্ট্রি ম্যানেজার জানিয়েছেন, এই মাস থেকে বড় ফ্লাইট অপারেট করবে। বাংলাদেশ দুতাবাসও এ ব্যাপারটি নিয়ে সমস্যায় আছেন। দুতাবাসও এই ব্যাপারে খুবই আন্তরিক। মান্যবর রাষ্ট্রদুত আমাদের অভিভাবক। তিনি সচেষ্ট হয়ে বিমানকে বিষয়টি জানিয়েছেন।

আপনি জানেন, ওমান সোস্যাল ক্লাব ওমান সরকার কর্তৃক স্বীকৃতিপ্রাপ্ত। সে কারনে আমরা ক্লাবের পক্ষ থেকে দুতাবাসকে অবহিত করেছি। আমরা মনে করি, মান্যবর রাষ্ট্রদূত মহোদয় এই সমস্যা সমাধানে সচেষ্ট আছেন। বিশিষ্ট সংগঠক এম.এন আমিন বলেন,’ বেসরকারী বিমানগুলো লাশ পরিবহন করে তবে খরচ পড়ে বেশি। ভিসা প্রসঙ্গে এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ওমানে বাংলাদেশিরা যাচ্ছে। ওমানে প্রায় ৮৭ ক্যাটাগরির ভিসা বন্ধ। বাংলাদেশিদের কোন ভিসা অফিসিয়ালি বন্ধ নেই। তারপরও গড়ে ৩/৪ হাজার বাঙ্গালী ওমানে যাচ্ছেন। রিটার্নও অনেক আসছেন। ভিসা জটিলতা যেটা আছে সেটা দুর করতে দুতাবাস চেষ্টা করছে। মান্যবর রাষ্ট্রদুত একজন দক্ষ ও অভিজ্ঞ ব্যক্তি। তিনি সর্বাত্বক চেষ্টা চালাচ্ছেন বলে আমরা অবগত আছি। মধ্যপ্রাচ্যে সর্বত্র তেলের মুল্য কমে যাওয়াতে সব দেশেই জনশক্তি রপ্তানীতে ভাটা পড়েছে। এটা শুধু ওমানে নয়, সমস্ত মধ্যপ্রাচ্যের সমস্যা। তিনি বলেন, ওমানে সোস্যাল ক্লাব আগের অবস্থান থেকে এখন অনেক বেশি আপগ্রেড হয়েছে। বর্তমান কমিটি দায়িত্ব নেওয়ার পর ক্লাবের সাংগঠনিক কাঠামো বৃদ্ধি করা হয়েছে। আগে যারা ছিলেন, তারাও কাজ করছে।

তিনি বলেন,’ সরকারকে রেমিটেন্স প্রবাহ বৃদ্ধি করতে অবশ্যই রেমিটেন্সের উপর টেক্স কমিয়ে আনতে হবে। তাহলে প্রবাসীরা হুন্ডির পরিবর্তে বৈধ পথে অর্থ পাঠাতে উৎসাহিত হবে। এ ছাড়া প্রবাসীদের বাধ্যতামুলক ব্যাংক একাউন্ট করে দিয়ে তা নজরদারী করলে সুফল পাওয়া যেতে পারে। প্রবাসে অবস্থানরত নাগরিকদের জাতীয় পরিচয়পত্র দুতাবাস থেকে ইস্যু করা এবং পাসপোর্টের মেয়াদ দশ বছর করা প্রয়োজন। বিশিষ্ট সংগঠক এম.এন আমিন বলেন,’প্রবাসীদের টাকা দেশে বিনিয়োগ ও দেশের ব্যাংকে সঞ্চিত রাখতে হলে ইনকাম টেক্স এবং প্রবাসীদের হোল্ডিং টেক্সের উপর কর কমাতে হবে। তাহলেই ব্যাপক হারে প্রবাসী রেমিটেন্স দেশের অর্থনীতিকে চাঙ্গা করবে। বিষয়টি সরকারের সংশ্লিষ্ট দপ্তর ভেবে দেখবেন বলে আশা করছি।

আমরা সার্বজনিন সোস্যাল ক্লাব করার চেষ্টা করছি। আগে একটি গন্ডিতে আবদ্ধ ছিল। এম.এন আমিন বলেন, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের বিজয়কে আমার পক্ষ থেকে অভিনন্দন জানাচ্ছি। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও মন্ত্রী পরিষদবর্গকেও ওমান প্রবাসীদের পক্ষ থেকে স্বাগত জানাচ্ছি। এম এন আমিন বলেন,’ আলো এসেছে, বাংলাদেশ বিমান মাস্কাট রুটে। সহসাই মাস্কাট রুটে বড় উড়োজাহাজ স্বপ্নের ড্রিমলাইনার বোয়িং ৭৮৭ চলবে। ধন্যবান ও কৃতজ্ঞতা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী সহ বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী সহ বিমানের সকল উর্ধতন কর্মকর্তাদেরকে।

অনেকদিন অপেক্ষার পর মান্যবর রাষ্ট্রদূতের ঐকান্তিক প্রচেষ্টা, সর্বস্তরের প্রবাসী ও বাংলাদেশ সোস্যাল ক্লাবের বিশেষ অনুরোধে বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রনালয়ের দায়িত্বে নিয়োজিত প্রতিমন্ত্রী মো: মাহবুব আলীর নির্দেশে ১৭/২/১৯ থেকে চালু হতে যাচ্ছে মাস্কাট রুটে ঢাকা, একদিন মাস্কাট-টু-সিলেট। বিমান কর্তৃপক্ষের সাথে কথা বলে জানা গেছে, প্রতি ফ্লাটে মিনিমাম তিনটি করে লাশ নিয়ে যাবেন। আশা করি এতদিন ধরে লাশ পরিবহনের যে ঝামেলাটি ছিল তা এখন থেকে অনেকাংশে সেটি নিরলস হবে ।

এ বিভাগের আরও খবর

Leave A Reply

Your email address will not be published.