ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ১৪ রানে জিতলো পাকিস্তান

0

সিটি নিউজ ডেস্ক :  ইংল্যান্ড ওয়ানডে র‌্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষ দল। দক্ষিণ আফ্রিকাকে উড়িয়ে দিয়ে টুর্নামেন্ট শুরু করা সেই উড়ন্ত ইংল্যান্ডকে মাটিতে নামাল পাকিস্তান। যারা নিজেদের প্রথম ম্যাচে বিধ্বস্ত হয়েছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজের কাছে।

ট্রেন্ট ব্রিজে ইংল্যান্ডকে ১৪ রানে হারিয়েছে সরফরাজ আহমেদের দল। এদিন প্রথমে ব্যাট করে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৮ উইকেটে ৩৪৮ রান করে পাকিস্তান। জবাবে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৯ উইকেটে ৩৩৪ রান করেছে ইংল্যান্ড।

বিশ্বকাপের বেশ কয়েকটি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়ে গেল। ভারত ছাড়া সব দলই নেমে গেল মাঠে। অথচ একটিও সেঞ্চুরি দেখা পাচ্ছিল না আসর। সেই সেঞ্চুরির খরা ঘুচেছে আজ। দুই দুইটি সেঞ্চুরি এসেছে ইংল্যান্ডের ইনিংসে। সেঞ্চুরি করেছেন জো রুট ও জস বাটলার। কিন্তু ব্যর্থই হল তাদের লড়াকু ইনিংস দুটি।

নিজেদের সর্বশেষ ১১ ম্যাচে হেরেছে পাকিস্তান। বিশ্বকাপে নিজেদের প্রথম ম্যাচেও হেরেছে বাজে ভাবে। ফলে ঘুরে দাঁড়ানোর কোন বিকল্প ছিল না তাদের সামনে। বিপরীতে দারুণ আত্মবিশ্বাসী ছিল ইংল্যান্ড। সর্বশেষ ১০ ম্যাচের ৮টিতেই জিতেছে তারা।

কিন্তু নটিংহাম আজ ভিন্ন গল্পই লিখল। লিখল ব্যর্থতার শেষ সীমা থেকে পাকিস্তানিদের ঘুরে দাঁড়ানোর গল্প। এদিন ইংল্যান্ডের বিখ্যাত ওপেনিং জুটি ভেঙে যায় দ্রুতই। দলীয় ১২ রানের মাথায় রয়কে (৮) হারায় ইংল্যান্ড।

এরপর বেয়ারস্টোর সাথে যোগ দেন রুট। দুইজন মিলে ভালোই এগুচ্ছিলেন। কিন্তু বেয়ারস্টোক বিদায় করে তাদের জুটি ৪৮ রানে থামিয়ে দেন ওয়াহব রিয়াজ। ৩১ বলে ৩২ রান করেছেন বেয়ারস্টো। এরপর দ্রুতই বিদায় নেন ইয়ন মরগান (৯) ও বেন স্টোকস (১৩)।

এসময় দলের হাল ধরেন জো রুট ও জস বাটলার। দুইজনের জুটিতে জয়ের স্বপ্নই দেখছিল ইংল্যান্ড। পাকিস্তানি বোলারদের হতাশায় পুড়িয়ে সেঞ্চুরি তুলে নেন রুট। তবে দুইজনের জুটিতে ১৩০ রান আসার পর রুটকে আউট করে সেই জুটি ভাঙেন শাদাব খান। তার আগে ১০৪ বলে ১০৭ রানের এক লড়াকু ইনিংস খেলেন রুট। ইংল্যান্ডের রান তখন ২৪৮।

এরপর মঈন আলীকে নিয়ে ভালোই খেলছিলেন বাটলার। ৭৫ বলে পূর্ণ করেন সেঞ্চুরি। কিন্তু তারপরই মোহাম্মদ আমিরের শিকার হয়ে মাঠ ছাড়েন তিনি। আর তখনই শেষ হয়ে যায় ইংল্যান্ডের জয়ের অবশিষ্ট সম্ভাবনা।

যদিও শেষ পর্যন্ত লড়েছেন মঈন (১৯) ও ক্রিস ওকস (২১)। কিন্তু পরপর দুই বলে তাদের দুইজনকে বিদায় করে পাকিস্তানের জয়কে সময়ের ব্যাপারে পরিণত করেন ওয়াহব রিয়াজ।

পাকিস্তানের হয়ে ২টি করে উইকেট নিয়েছেন শাদাব খান ও মোহাম্মদ আমির। ওয়াহব রিয়াজ নিয়েছেন ৩ উইকেট।

এ বিভাগের আরও খবর

Leave A Reply

Your email address will not be published.