প্রিয়া সাহার পুরো বক্তব্য ‌মিথ্যা ও ভিত্তিহীন- পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়

0

সিটি নিউজ ডেস্ক : মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের কাছে বাংলাদেশ প্রসঙ্গে প্রিয়া সাহার পুরো বক্তব্যই ‌মিথ্যা ও ভিত্তিহীন দাবি করে এর তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছে বাংলাদেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

শনিবার (২০ জুলাই) সকালে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে প্রিয়া সাহার মন্তব্যের আনুষ্ঠানিকভাবে নিন্দা ও প্রতিবাদ জানায় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ‘প্রিয়া সাহার এই মিথ্যা ও কল্পিত গল্পের পেছনে বাংলাদেশের ক্ষতি সাধন করার উদ্দেশ্য ছিল।’

এতে বলা হয়, ‘উল্লেখিত সাক্ষাতকার পর্বে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের কাছে বাংলাদেশ সম্পর্কে প্রিয়া সাহা যে সকল বানোয়াট মিথ্যাচার উপস্থাপন করেছেন তার বিরুদ্ধে বাংলাদেশ সরকার দৃঢ় প্রতিবাদ ও তীব্র নিন্দা জ্ঞাপন করছে। প্রিয়া সাহার এসকল বানোয়াট মন্তব্য একেবারেই ভিত্তিহীন এবং কাল্পনিক মিথ্যাচার ভিন্ন অন্য কিছুই নয়। তার এ ধরণের মিথ্যাচারের আড়ালে সুনিশ্চিতভাবেই কোন ঘৃণ্য স্বার্থ চরিতার্থ করবার অপপ্রয়াস লুক্কায়িত বলেই ধারণা করা যায়। এসকল মিথ্যা অপপ্রচারের মাধ্যমে সাহা উদ্দেশ্যপ্রণোদিত ভাবেই বাংলাদেশের মানক্ষুণ্ণ করবার অপচেষ্টা চালিয়েছেন।’

সাম্প্রদায়িকতা ও মানবিকতার ইস্যুতে বাংলাদেশের অবস্থান তুলে ধরে বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বাংলাদেশ ধর্মীয় স্বাধীনতা ও সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির একটি অনির্বান আলোকবর্তিকা হিসেবে প্রতীয়মান। যেখানে সকল সম্প্রদায়ের মানুষ যুগ যুগ ধরে সৌহার্দ্য ও ভ্রাতৃত্বের বন্ধবে আবদ্ধ হয়ে শান্তিতে বসবাস করে আসছে। শুধু তাই নয়, এরইমধ্যে মিয়ানমারের প্রায় ১০ লাখ নিপীড়িত রোহিঙ্গা শরণার্থীদের অস্থায়ীভাবে আশ্রয় প্রদানের মাধ্যমে বিশ্বব্যাপী বাংলাদেশ সরকারকে মানবিক মনোভাব ও উদারতার উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত স্থাপিত হয়েছে।’

বিজ্ঞপ্তিতে বাংলাদেশ সরকারের পক্ষ থেকে মার্কিন প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করে বলা হয়েছে,‘বাংলাদেশ সরকার আশা করবে ভবিষ্যতে এ ধরনের বড় আন্তর্জাতিক অনুষ্ঠানের আয়োজকরা দায়িত্বশীল ব্যক্তিদের আমন্ত্রণ জানাবেন, যারা প্রকৃতপক্ষে ধর্মীয় স্বাধীনতার মূল্যবৃদ্ধিতে অবদান রাখছে।’

প্রসঙ্গত, গত ১৬ জুলাই মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ধর্মীয় স্বাধীনতা ও সহিষ্ণুতা বিষয়ে বিশ্বের বিভিন্ন ধর্মীয় নেতা ও প্রতিনিধিদের সঙ্গে হোয়াইট হাউজে কথা বলেন। এতে বাংলাদেশি পরিচয়ে প্রিয়া সাহা উপস্থিত হয়ে ট্রাম্পের কাছে বাংলাদেশে সংখ্যালঘু ধর্মাবলম্বীদের ইস্যুত বিভ্রান্তকর মিথ্যা তথ্য উপস্থাপন করেন। যার বিরুদ্ধে পুরো দেশের মানুষ তীব্র প্রতিবাদে মুখর হয়ে উঠেছে।

এ বিভাগের আরও খবর

Leave A Reply

Your email address will not be published.