বিকেলের মধ্যে শতভাগ বর্জ্য অপসারণ করেছে চসিকঃ মেয়র

0

সিটি নিউজঃ নগরীর ওয়ার্ড সমূহ থেকে আনুমানিক পাঁচ হাজার টন কোরবানির বর্জ্য অপসারণের টার্গেট নিয়ে কাজ শুরু চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন। এই বর্জ্য অপসারণ কাজে সার্বক্ষনিক নিয়োজিত ছিল চসিকের প্রায় পাঁচ হাজার পরিচ্ছন্ন কর্মী। সরাসরি এ কার্যক্রম তদারকি করেন সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন।

আজ সামবার (১২ আগষ্ট) বিকেলে সিটি মেয়র আলহাজ্ব আ.জ.ম নাছির উদ্দীন নগরীর আলমাস সিনেমা মোড় থেকে কাজীর দেউড়ি হয়ে লাভ লেইন মোড় এলাকা, জুবলী রোড, নিউমার্কেট সদরঘাট, আলকরণ, কোতোয়ালী মোড়, লালদিঘী, বক্সিরহাটসহ নগরীর বিভিন্ন এলাকায় চলমান বর্জ্য অপসারণ কার্যক্রম পরিদর্শন করেন।

এসময় তিনি প্রধান সড়কের বিভিন্ন ডাস্টবিনগুলোতে কোরবানি বর্জ্য অপসারণ কার্যক্রমে নিয়োজিতদেরকে নানামুখী দিক নির্দেশনা দেন। এছাড়া তিনি জোনের দায়িত্ব প্রাপ্ত কাউন্সিলরদের সাথে সার্বক্ষনিক মুটোফোনে যোগাযোগ করেন। বর্জ্য অপসারন কাজ আরো বেগমান করতে এবং নির্ধারিত সময়ের আগেই নগর পরিস্কার পরিচ্ছন্ন করার জন্য তিনি সংশ্লিষ্ঠদের দিক নির্দেশনা দেন।

পরিদর্শনকালে সিটি মেয়র নগরীর প্রধান সড়কে বিকাল ৫ টার মধ্যে এবং রাত ৮ টার মধ্যে অলিগলির বর্জ্য শতভাগ অপসারণ করার জন্য গুরুত্বারোপ করেন। তিনি বলেন, বিকালে নগরীর বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা গেছে কোরবানির বর্জ্য প্রায় পরিস্কার করা হয়ে গেছে।

তিনি বলেন, এবার যেহেতু ডেঙ্গু রোগের প্রাদুর্ভাব দেখা যাচ্ছে, সেজন্য আমরা বর্জ্য অপসারণ কার্যক্রমে আলাদা সাবধানতা অবলম্বন করেছে চসিক। কোথাও যাতে বর্জ্য বা পানি জমে না থাকে সেব্যাপারে সংশ্লিষ্টদেরকে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। এবছর বর্জ্য অপসারণ কাজে ২৭৩ টি গাড়ি সার্বক্ষণিক দায়িত্ব পালন করে। পরিচ্ছন্ন কর্মীরা শতভাগ আন্তরিকতার সাথে দায়িত্ব পালন করছে। এজন্য চসিক পরিচ্ছন্ন কর্মীরা দিনরাত পরিশ্রম করে এই ঈদে পরিবার পরিজনের কাছ থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে দায়িত্ব পালন করছে। এজন্য তাদেরকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানিয়েছেন চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আলহাজ্ব আ.জ.ম.নাাছির উদ্দীন।

নগরীর কোথাও কোরবানির জবাইকৃত পশুর বর্জ্য কোরবানির দিন রাত ৮.০০ ঘটিকার পরে পড়ে থাকতে দেখা গেলে দয়া করে তাৎক্ষনিকভাবে কন্ট্রোলরুমে ০৩১- ৬৩০৭৩৯ , ০৩১ -৬৩৩৬৪৯ অথবা ০১৭১২২৫২৬১৫ , ০১৬৭৫২১৮৪৮৫ নম্বরে সংবাদ দেয়ার আহবান সিটি মেয়রের।

পরিদর্শনকালে চসিক প্যানেল মেয়র চৌধুরী হাসান মাহমুদ হাসনী, বর্জ্য ষ্ট্যান্ডিং কমিটির চেয়ারম্যান শৈবাল দাশ সুমন, কাউন্সিলর হাসান মুরাদ বিপ্লব, মোহাম্মদ হোসেন হিরণ, প্রধান প্রকৌশলী লে. কর্ণেল মহিউদ্দিন আহমেদ, মেয়রের একান্ত সচিব মো. আবুল হাসেম, অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী রফিকুল ইসলাম মানিক, প্রধান পরিচ্ছন্ন কর্মকর্তা শফিকুল মান্নান সিদ্দিকী, তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী সুদীপ বসাক, ঝুলন কান্তি দাশ, অতিরিক্ত প্রধান পরিচ্ছন্ন কর্মকর্তা মোরশেদুল আলম চৌধুরী, সহ কর্পোরেশনের অন্যান্য কর্মকর্তাবৃন্দ সিটি মেয়রের সাথে ছিলেন । পরিদর্শনকালে মেয়র পশু বর্জ্য অপসারণে সহযোগিতা করায় নগরবাসীকে ধন্যবাদ জানান।

তিনি বলেন, নির্ধারিত স্থানে কোরবানীর জন্য কর্পোরেশনের পক্ষ থেকে গত ১ সপ্তাহ যাবত নগরবাসীর সচেতনতা সৃষ্টির জন্য মাইকিং, লিফলেট, হ্যান্ডবিল বিতরণ করা হয়। এতে আশানুরুপ সাড়া পেয়েছি। এ কার্যক্রম এবার শতভাগ সফল বলে মেয়র দাবী করেন। এ সময় মেয়র নগরবাসীর সাথে কুশল ও শুভেচ্ছা বিনিময়ের পাশাপাশি বর্জ্য, নাড়িভুঁড়ি ও কোরবানীর পশুর উচ্ছিষ্ট অংশ নির্ধারিত ডাষ্টবিনে ফেলার অনুরোধ জানান।

এ বিভাগের আরও খবর

Leave A Reply

Your email address will not be published.