বাংলাদেশের উ্ন্নয়নের পেছনে কৃষকের অবদান বেশীঃ শেখ হাসিনা

0

সিটি নিউজ ডেস্কঃ আওয়ামী লীগ সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, বাংলাদেশ আজ উন্নয়নশীল দেশ। আমাদের প্রবৃদ্ধি আজ ৮ দশমিক ১৩। এর পিছনে সবচেয়ে বড় অবদান কৃষকের। আমরা আজ খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণতা অর্জন করেছি। এখন পুষ্টির দিকে নজর দিয়েছি। মাছ, মাংস, ডিম, দুধ, ফলমূল এগুলো পর্যাপ্ত পরিমাণে উৎপাদনের ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। এ বিষয়ে সরকার কৃষকদের সুবিধা দিচ্ছে।

আজ বুধবার (৬নভেম্বর) দুপুরে ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে কৃষক লীগের জাতীয় সম্মেলনের প্রথম অধিবেশনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।

সকাল ১১টায় কৃষকলীগের দশম জাতীয় সম্মেলন শুরু হয়। আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পায়রা ও বেলুন উড়িয়ে এই সম্মেলনের উদ্বোধন করেন। কৃষকলীগের সভাপতি মোতাহার হোসেন মোল্লা সম্মেলনের প্রথম অধিবেশনে সভাপতিত্ব করেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, এ দেশকে রক্ষা করতে হলে কৃষক ও জমি বাঁচাতে হবে। কৃষি জমি নষ্ট করে কোনো শিল্প কলকারখানা ও ইন্ডাস্ট্রি করা যাবে না। এছাড়া নিজেদের চাহিদা পূরণ করে কৃষিপণ্য যেন বিদেশে রফতানি করতে পারি সে ব্যবস্থা করতে হবে।

তিনি বলেন, সমবায়ের মাধ্যমে কৃষকরা যাতে তাদের উৎপাদিত পণ্যের ন্যায্যবাজার পায় সে ব্যবস্থাও সরকার করছে। কৃষকদের উৎপাদনের ফলেই আমাদের দেশের মানুষের মাথাপিছু আয় আজ প্রায় দুই হাজার ইউএস ডলার হয়েছে।

শেখ হাসিনা বলেন, হাওর এলাকার কৃষকরা অকাল বন্যায় প্রায় ক্ষতিগ্রস্ত হয়। এ ছাড়া উপকূলীয় এলাকার কৃষকরাও প্রাকৃতিক দুর্যোগে সব কিছু হারিয়ে নিঃস্ব হয়ে যায়। তাদের জন্য কোনো বীমার ব্যবস্থা চালু করা যায় কি-না সেটাও আমাদের সরকার ভাবছে। বাংলাদেশ প্রতিনিয়ত এগিয়ে যাচ্ছে। এ অর্জন আমাদের ধরে রাখতে হবে।

তিনি আরও বলেন, কৃষক যাতে ভালোভাবে ফসল ফলাতে পারে সে জন্য সারের দাম কমানো হয়েছে। সেচের জন্য ব্যবহার করা বিদ্যুতের ওপর ২০ ভাগ ভর্তুকি দেয়া হয়েছে।

জাতীয় সম্মেলনের প্রথম অধিবেশনে সভাপতিত্ব করেন কৃষক লীগের সভাপতি আলহাজ মোতাহার হোসেন মোল্লা। অনুষ্ঠানে সাংগঠনিক রিপোর্ট পেশ করেন কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট খন্দকার শামসুল হক রেজা।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের, সর্বভারতীয় কৃষাণ সভার সাধারণ সম্পাদক অতুল কুমার অঞ্জন প্রমুখ। সম্মেলনে কৃষক লীগের জাতীয় কমিটির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের নাম ঘোষনা করা হয়।

কৃষক লীগের নতুন সভাপতি সমির, সম্পাদক কুলসুম
কৃষক লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির নতুন নেতৃত্ব ঘোষণা করা হয়েছে। সমির চন্দ্র সভাপতি এবং উম্মে কুলসুম স্মৃতিকে সাধারণ সম্পাদক করে এই কমিটি করা হয়েছে।

এর আগে কমিটির শীর্ষ দুই পদে নাম প্রস্তাব করেছেন কাউন্সিলরা। সভাপতি পদে সাবেক সভাপতি মোতাহার হোসেন মোল্লাসহ ১৩ জন ও সাধারণ সম্পাদক পদে ১১ জনের নাম প্রস্তাবে আসে। দুজনই আগের কমিটিতে যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক পদে দায়িত্ব পালন করেছেন।

কাউন্সিলের এই সেশন মনিটরিং করেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। এর আগে দুপুরে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছিলেন, শুদ্ধি অভিযানের ধারাবাহিকতায় এবার কৃষকলীগের সম্মেলনের মাধ্যমে ক্লিন ভাবমূর্তির নেতৃত্ব উপহার দেয়া হবে।

 

 

এ বিভাগের আরও খবর

আপনার মতামত লিখুন :

Your email address will not be published.