চন্দনাইশ ধোপাছড়ির সাথে সড়ক যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন

0

মো.দেলোয়ার হোসেন,চন্দনাইশ : চন্দনাইশ উপজেলার বান্দরবান সড়কের বাজালিয়া থেকে শুরু হয়ে সড়কটি ধোপাছড়ি চিড়িংঘাটায় গিয়ে শেষ হয়। সড়কের মাঝ পথে বৈতরনী এলাকায় সুয়ালগ ব্রিজটি ভেঙ্গে যাওয়ায় ধোপাছড়ির সাথে সড়ক যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়,বান্দরবান সড়কের বাজালিয়া এলাকা থেকে একটি সড়ক বাজালিয়া, পুরানগড়, ধোপাছড়ি, চিড়িংঘাটা হয়ে ধোপাছড়িতে সড়ক পথে যাতায়াত করা যায়। এ সড়কের মাঝ পথে বৈতরনী এলাকায় সুয়ালগ ব্রিজের এক পাশে গত বর্ষা মৌসুমে মাটি সরে যাওয়ায় দূর্গম পাহাড়ি এলাকা ধোপাছড়ির সাথে সড়ক যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে।

স্থানীয়রা জানান, দীর্ঘ ৩ মাস পূর্বে পাহাড়ি ঢলে সুয়ালক খালের উপর নিমির্ত সুয়ালগ ব্রিজের দক্ষিণ পাশে মাটি সরে যাওয়ায় ধোপাছড়ির সাথে সড়ক যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হওয়ার পাশাপাশি সাধারণ মানুষের চলাচল ব্যাহত হচ্ছে। এ সড়কের ব্রিজটি ভেঙ্গে পড়ার কারণে ধোপাছড়ির সাথে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে অনেকটা।

             সুয়ালগ ব্রিজ

ধোপাছড়ি ইউনিয়নের অধিবাসী ও ব্যবসায়ী আবদুল আলীম বলেছেন, গত কয়েক মাস পূর্বে বর্ষা মৌসুমে পাহাড়ি ঢলে ব্রিজের একপাশে মাটি সরে গিয়ে ধোপাছড়ির সাথে সড়ক যোগাযোগ বিছিন্ন হয়ে পড়ে। সাধারণ মানুষকে পায়ে হেটে ব্রিজ পাড় হয়ে দু’দফা সিএনজি টেক্সি ব্যবহার করে গন্তব্য স্থানে পৌছতে হয়। অতিরিক্ত অর্থ ব্যয়ের পাশাপাশি অতিরিক্ত সময়ও ব্যয় হচ্ছে সাধারণ মানুষের। এ সড়কটি ছাড়া অন্য কোন সড়ক না থাকায় ধোপাছড়ি যেতে হলে বান্দরবান হয়ে যেতে হয়।

বাজালিয়া থেকে শুরু হওয়া সড়কটি চিড়িংঘাটা পর্যন্ত প্রায় ৮ কি.মি সড়কের অধিকাংশ জায়গায় সড়কের কার্পেটিং উঠে গিয়ে মেকাডাম পর্যন্ত উঠে যায়। বৈতরনী পর্যন্ত সড়কটি ক্ষত-বিক্ষত হয়ে পড়েছে। ফলে এ সড়ক দিয়ে যানবাহন চলাচল করা দুঃসাধ্য হয়ে পড়েছে। দীর্ঘ ৩ মাসের অধিককাল সময় ধরে ব্রিজটি সংস্কার না করায় এ সব এলাকার সাধারণ মানুষ ভোগান্তির স্বীকার হচ্ছে। সে সাথে সড়কটি সংস্কার না করার কারণে এ সকল এলাকার রোগী, বয়স্ক লোক, মহিলাদের চলাচল ব্যাহত হচ্ছে। একইসাথে শিক্ষার্থীরা তাদের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে যথাযতভাবে যাতায়াত করতে পারছে না। এ ব্যাপারে তারা যথাযথ কতৃপক্ষের হস্তক্ষেপ ও সু-দৃষ্টি কামনা করেছেন।

এ বিভাগের আরও খবর

আপনার মতামত লিখুন :

Your email address will not be published.