চট্টগ্রামে বৃহস্পতিবার থেকে রিহ্যাব ফেয়ার শুরু

0

সিটি নিউজঃ চট্টগ্রামে আগামী বৃহস্পতিবার থেকে শুরু হচ্ছে চট্টগ্রাম রিহ্যাব ফেয়ার ২০২০। ‘স্বপ্নীল আবাসন সবুজ দেশ-লাল সবুজের বাংলাদেশ’ এই স্লোগান নিয়ে নগরীর হোটেল রেডিসন ব্লু’তে আগামী বৃহস্পতিবার থেকে শুরু হচ্ছে চার দিনব্যাপী রিহ্যাব চট্টগ্রাম ফেয়ার-২০২০। এবারের ফেয়ারে ৫৫টি প্রতিষ্ঠানের ৭৩টি স্টল অংশ নিচ্ছে। এবার রিহ্যাব ফেয়ারে গোল্ড স্পন্সর হচ্ছে এয়ারবেল ডেভেলপমেন্ট টেকনোলজীস লি. ও বি প্রপার্টি ডট কম লি.।

আজ মঙ্গলবার (৪ ফেব্রুয়ারী) বেলা সাড়ে ১২টায় চট্টগ্রাম ক্লাব অডিটোরিয়ামে রিহ্যাব চট্টগ্রাম ফেয়ার উপলক্ষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে রিয়েল এস্টেট অ্যান্ড হাউজিং অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (রিহ্যাব) ভাইস প্রেসিডেন্ট ও চট্টগ্রাম রিজিওনাল কমিটির চেয়ারম্যান আবদুল কৈয়ূম চৌধুরী এ তথ্য জানান।

সংবাদ সম্মেলনের লিখিত বক্তব্যে তিনি জানান, দেশের অর্থনীতিতে সমগ্র নির্মাণ শিল্পের অবদান ১৫ শতাংশ। বাংলাদেশের আবাসন সংশ্লিষ্ট শিল্পের ওপর ৩৫ লাখ শ্রমিক নির্ভরশীল ২ কোটি মানুষের অন্নের যোগান দিচ্ছে। এছাড়া আবাসন খাত নতুন নতুন উদ্যোক্তা সৃষ্টি করছে। যা দেশে উন্নয়নে শক্তিশালী ভূমিকা রাখছে। কিন্তু নীতিনির্ধারণী কিছু সমস্যার কারণে আবাসন খাত বর্তমানে সংকটের মধ্য দিয়ে যাচ্ছে। তবে এ সংকটময় অবস্থা থেকে ধীরে ধীরে এ খাত বেরিয়ে আসছে। কিছু দিন আগে এই খাতের নিবন্ধন ব্যয় ২ শতাংশ কমানো হয়েছে।

এছাড়া রিহ্যাব এর পক্ষ থেকে আরও ৪ শতাংশ নিবন্ধন ব্যয় কমানোর জন্য জোর তৎপরতা চলছে। এখনও সব নাগরিকের জন্য দীর্ঘমেয়াদি ঋণের ব্যবস্থা না থাকা এবং ব্যাংক ঋণের উচ্চ সুদহার এ খাতের বড় প্রতিবন্ধকতা। জাতীয় প্রবৃদ্ধিতে প্রায় ১৫ শতাংশ ভূমিকা রাখা আবাসন শিল্পে নিবন্ধন ব্যয় কমিয়ে ৬-৭ শতাংশ নিয়ে আসলে এ খাত অর্থনীতিতে আরও অবদান রাখতে পারে। তিনি বলেন, আবাসন খাত এগিয়ে গেলে নাগরিকদের মৌলিক চাহিদা “বাসস্থান” পূরণের পাশাপাশি শিল্প-কারখানা বিকশিত হবে এবং এর ফলে সমৃদ্ধ হবে দেশের অর্থনীতি।

“স্বপ্নীল আবাসন সবুজ দেশ, লাল সবুজের বাংলাদেশ” এই স্লোগানকে সামনে রেখে বিগত সময়ে চট্টগ্রামে ১২ টি ফেয়ার সফলভাবে সম্পন্ন করেছে রিহ্যাব। ২০০১ সাল থেকে ঢাকায় রিহ্যাব হাউজিং ফেয়ার শুরু হয়। সম্প্রতি আমরা ঢাকায় রিহ্যাব উইন্টার ফেয়ার ২০১৯ সম্পন্ন করেছি। সেখানে আমরা বিপুল পরিমাণ সাড়া পেয়েছি। ২০০৪ সাল থেকে রিহ্যাব বিদেশেও হাউজিং ফেয়ার আয়োজন করে আসছে বলে জানান তিনি।

এবারের চার দিনব্যাপী ফেয়ারে ৭৩টি স্টল স্থান পাচ্ছে। আর্থিক প্রতিষ্ঠান ও বিল্ডিং ম্যাটেরিয়ালসসহ কয়েকটি লিংকেজ প্রতিষ্ঠানকে ফেয়ারে অংশগ্রহণ করার সুযোগ করে দেওয়া হয়েছে। এ ফেয়ারে প্রথমবারের মতো গোল্ড স্পন্সর হিসেবে ২টি প্রতিষ্ঠান, কো স্পন্সর হিসেবে ১৮টি, ৬টি আর্থিক প্রতিষ্ঠান এবং ১৪টি বিল্ডিং ম্যাটেরিয়ালস প্রতিষ্ঠানসহ মোট ৫৫টি স্বনামধন্য প্রতিষ্ঠান অংশগ্রহণ করেছে।

আগামী বৃহস্পতিবার থেকে শুরু হওয়া এ ফেয়ার চলবে ৯ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত। এতে উদ্বোধনী অধিবেশনে প্রধান অতিথি হিসেবে থাকবেন গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রী শ.ম. রেজাউল করিম। বিশেষ অতিথি থাকবেন সংসদ সদস্য নুরুন্নবী শাওন চৌধুরী, সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন এবং চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান এম জহিরুল আলম দোভাষ।

ফেয়ার উপলক্ষে ৭ ফেব্রুয়ারি সকাল ৯টায় রেডিসন ব্লু’তে শিশু চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হবে। এতে প্রধান অতিথি থাকবেন শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল। চার দিনব্যাপী এ ফেয়ারে প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত ক্রেতা ও দর্শনার্থীরা প্রবেশ করতে পারবেন।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন, রিহ্যাব চট্টগ্রাম রিজিওনাল কমিটির পরিচালক ও চেয়ারম্যান-১ ইঞ্জিনিয়ার দিদারুল হক চৌধুরী, রিহ্যাব চট্টগ্রাম রিজিওনাল কমিটির পরিচালক ও চেয়ারম্যান-২ মাহবুব সোবহান জালাল তানভীর, সদস্য মিজানুর রহমান, রেজাউল করিম, মো. মোরশেদুল হাসান, মো. নাজিম উদ্দিন, ইঞ্জিনিয়ার শেখ নিজাম উদ্দিন, শাবিস্ত বিনতে নূর, হাজী দেলোয়ার হোসেন, মহিউদ্দিন চৌধুরী খসরু ও আশিষ রায় চৌধুরী।

এ বিভাগের আরও খবর

আপনার মতামত লিখুন :

Your email address will not be published.