সারাদেশে সব গণপরিবহন বন্ধ

0

সিটি নিউজ ডেস্ক : করোনাভাইরাসের বিস্তাররোধে আগামী ২৬ মার্চ থেকে ৪ এপ্রিল পর্যন্ত সারাদেশে গণপরিবহন বন্ধ (লকডাউন) থাকবে। মঙ্গলবার (২৪ মার্চ) সকালে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী এবং বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের এক ভিডিও বার্তায় একথা জানান। সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

এতে বলা হয়, করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলায় সরকার দেশবাসী, জনগণ, যাত্রীসাধারণ, মালিক-শ্রমিকসহ সংশ্লিষ্ট সকলের জ্ঞাতার্থে জানাচ্ছে যে, আগামী ২৬ মার্চ থেকে ৪ এপ্রিল পর্যন্ত সারাদেশে গণপরিবহন লকডাউন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

তবে ট্রাক, কাভার্ডভ্যান, ওষুধ, জরুরি সেবা, জ্বালানি, পচনশীল পণ্য পরিবহণ-এ নিষেধাজ্ঞার বাইরে থাকবে।

পণ্যবাহী যানবাহনে কোনো যাত্রী পরিবহন করা যাবে না বলেও ভিডিও বার্তায় উল্লেখ করা হয়।

এর আগে করোনা সংক্রমণ ঠেকাতে সারা দেশে যাত্রীবাহী নৌযান চলাচল বন্ধ ঘোষণা করে বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআইডব্লিউটিএ)। আজ মঙ্গলবার (২৪ মার্চ) বিকেল থেকে এ সিদ্ধান্ত কার্যকর হবে বলে জানায় সংস্থাটি।

প্রসঙ্গত, গত সোমবার করোনা সংক্রমণ ঠেকাতে পাঁচ দিন সাধারণ ছুটি ঘোষণা করেছে সরকার, ফলে ২৬ মার্চ থেকে ৪ এপ্রিল পর্যন্ত ছুটি থাকবে দেশের সব অফিস-আদালতে। আর পাঁচ দিন সাধারণ ছুটি ঘোষণা করার পর আজ রেলওয়ের সব লোকাল ও মেইল ট্রেনও বন্ধ ঘোষণা করা হয়।

এ বিষয়ে রেলওয়ের মহাপরিচালক মো. শামছুজ্জামান জানান, করোনা পরিস্থিতির জন্য এর আগে ট্রেনের অগ্রিম টিকিট ১০ দিনের পরিবর্তে ৫ দিন করা হয়েছে। বন্ধ রয়েছে ঢাকা কলকাতার মধ্যে চলাচল কারী মৈত্রী এক্সপ্রেস ট্রেন। এখন মেইল ও লোকাল ট্রেন বন্ধ করা হলো। সরকারের আরও সিদ্ধান্ত হলে সেগুলো জানিয়ে দেবে রেলওয়ে।

উল্লেখ্য, বিশ্বব্যাপী মহামারি আকার ধারণ করা করোনাভাইরাসে মৃত্যুর মিছিল শুধুই দীর্ঘ হচ্ছে। প্রতি মিনিটে বাড়ছে মৃতের সংখ্যা। এখন পর্যন্ত বিশ্বের ১৯৫টি দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে করোনাভাইরাস। আর প্রাণঘাতী এই ভাইরাসে এখন পর্যন্ত আক্রান্তের সংখ্যা ৩ লাখ ৮১ হাজার ৬৪৩ এবং মারা গেছে ১৬ হাজার ৫৫৮ জন। অপরদিকে চিকিৎসা শেষে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছে ১ লাখ ২ হাজার ৬৯ জন।

এ বিভাগের আরও খবর

আপনার মতামত লিখুন :

Your email address will not be published.