টিকটক যুক্তরাষ্ট্রের কাছে বিক্রির চেয়ে বন্ধ করে দিতে চায় চীন

0

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ টিকটক যুক্তরাষ্ট্রকে বিক্রি করার চেয়ে যুক্তরাস্ট্রে বন্ধ করে দিতে চায় চীন। মূলত মার্কিন কোনো প্রতিষ্ঠানের কাছে চীনা প্রতিষ্ঠান বাইটড্যান্স তাদের জনপ্রিয় ভিডিও শেয়ারিং সাইট টিকটক বিক্রি করে দিক, তা চাইছে না বেইজিং। এর চেয়ে তারা যুক্তরাষ্ট্রে টিকটক বন্ধ করে দিতে বলেছে।

ওয়াশিংটনের চাপে পড়ে বাইটড্যান্স টিকটকের যুক্তরাষ্ট্রের ব্যবসা বিক্রির জন্য আলোচনা করছে। সম্ভাব্য ক্রেতার তালিকায় রয়েছে মাইক্রোসফট ও ওরাকলের মতো দুই মার্কিন সফটওয়্যার নির্মাতা প্রতিষ্ঠান।

গত মাসে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প হুমকি দিয়ে বলেন, টিকটক বিক্রি না করলে তা যুক্তরাষ্ট্রে নিষিদ্ধ করা হবে। এ জন্য সেপ্টেম্বরের মাঝামাঝি পর্যন্ত সময় বেঁধে দেন তিনি। গত বৃহস্পতিবার ট্রাম্প ফের হুমকি দিয়েছেন, টিকটক বিক্রির জন্য বেঁধে দেওয়া দিনক্ষণ পাল্টানো যাবে না। হয় এটা বন্ধ হয়ে যাবে, নয়তো তাদের বিক্রি হতে হবে।

ট্রাম্প প্রশাসন হুমকি দিয়েছে, ২০ সেপ্টেম্বরের মধ্যে টিকটক কোনো মার্কিন প্রতিষ্ঠানের কাছে বিক্রি না হলে এটি নিষিদ্ধ করা হবে। তারা আশা করছে, কোনো মার্কিন কোম্পানি টিকটককে কেনার জন্য চুক্তি করবে। তরুণদের মধ্যে জনপ্রিয় প্ল্যাটফর্ম হিসেবে টিকটক পরিচিতি পেলেও ট্রাম্প প্রশাসনের পক্ষ থেকে এর কার্যক্রম নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করা হয়। ওয়াশিংটনের অভিযোগ, মার্কিন নাগরিকদের তথ্য বেইজিংকে দেয় টিকটক। অবশ্য টিকটকের পক্ষ থেকে অভিযোগ অস্বীকার করা হয়েছে।

বিষয়টি স্পর্শকাতর বলে নাম প্রকাশ না করে চীনা কর্মকর্তারা বলেছেন, তাঁরা মনে করছেন, ওয়াশিংটনের চাপে পড়ে টিকটক বিক্রি করতে বাধ্য হলে বাইটড্যান্স ও চীন সবার সামনে দুর্বল বলে প্রমাণিত হবে।

বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে দেওয়া বিবৃতিতে বাইটড্যান্স জানিয়েছে, চীন সরকার কখনো যুক্তরাষ্ট্র বা অন্য কোনো দেশে টিকটক বন্ধ করে দেওয়ার পরামর্শ দেয়নি। দুটি সূত্র বলেছে, বাইটড্যান্সকে যদি কোনো চুক্তিতে পৌঁছাতে হয়, তবে চুক্তির জন্য অপেক্ষায় রাখবে চীন। গত ২৮ আগস্ট চীন যে প্রযুক্তি রপ্তানির নতুন তালিকা করেছে, তার পর্যালোচনা করবে তারা।

ট্রাম্প ও টিকটক বিষয়ে চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র ঝাও লিঝিয়ান বলেন, যুক্তরাষ্ট্র তাদের জাতীয় নিরাপত্তার ধারণাটির অপব্যবহার করছে। তিনি বিদেশি কোম্পানিগুলোকে হয়রানি না করার আহ্বান জানান।

রয়টার্সের প্রতিবেদনে জানানো হয়, টিকটকের সম্ভাব্য ক্রেতারা চারটি উপায় খতিয়ে দেখছেন। এর মধ্যে চীনের অনুমতি ছাড়াই টিকটকের মার্কিন ব্যবসা বিক্রির সুযোগ রয়েছে, যাতে মূল অ্যালগরিদম বিক্রি হবে না।

এ বিভাগের আরও খবর

আপনার মতামত লিখুন :

Your email address will not be published.