আসুন নারীকে মাথা উঁচু করে বাঁচতে দিইঃ মাশরাফি

0

স্পোর্টস ডেস্কঃ সারাদেশে নারী নির্যাতন, ধর্ষণ, খুনের ঘটনায় জাতীয় দলের সাবেক অধিনায়ক এবং বর্তমানে সংসদ সদস্য মাশরাফি বিন মর্তুজা তার ভেরিফায়েট ফেসবুক পেজে লিখেছেন, একের পর এক ধর্ষণের ঘটনায় সারা দেশে তোলপাড়। সিলেটের এমসি কলেজের গণর্ধষণের ঘটনার রেশ কাটতে না কাটতেই নোয়াখালীতে ধর্ষণচেষ্টা এবং নারীকে বস্ত্রহরণ করে নির্যাতনের ঘটনায় সারাদেশ তোলপাড়। ধর্ষণবিরোধী প্রতিবাদী জনতা নেমে এসেছে রাজপথে। ধর্ষকের কঠিন শাস্তি নিশ্চিত করাই এই আন্দোলনের মূল লক্ষ্য।

সারাদেশে চলছে যেন বেপরোয়া ধর্ষণের উৎসব। সমাজের কিছু খারাপ মানুষ এসব অপকর্মগুলো ঘটিয়ে আসছে। এ খারাপ মানুষগুলোকে জাতীয় দলের সাবেক অধিনায়ক এবং বর্তমানে সংসদ সদস্য মাশরাফি বিন মর্তুজা অভিহিত করেছেন, কুৎসিত মানুষ হিসেবে।

একদিন আগে নিজের ধর্ষণবিরোধী অবস্থান তুলে ধরেন সাকিব আল হাসান। এ নিয়ে ‘জিরো টলারেন্স’ নীতি অবলম্বন করার আহ্বান জানিয়েছেন সাকিব। এরপর নিজের ফেসবুক পেজে ধষর্ণবিরোধী আওয়াজ তোলেন মুশফিকুর রহীমও।

ফেসবুকে দেয়া মাশরাফির স্টাটাস
ফেসবুকে দেয়া মাশরাফির স্টাটাস

আজ সেই ধর্ষণবিরোধী আওয়াজ তুলে কুৎসিত মানুষগুলোকে সামাজিকভাবে বয়কট করার আহ্বান জানিয়েছেন মাশরাফি। নিজের ফেসবুক ওয়ালে দেয়া একটি পোস্টে নিজের অবস্থান তুলে ধরেন মাশরাফি।

সেই পোস্টে তিনি লিখেছেন, ‘আপনার মেয়ে যখন আপনার কোলে বসে থাকে, তখন আপনার সেই অনুভূতি হয় না। যখন আপনার বোন আপনার পাশের রুমে থাকে, তখনও সেই অনুভূতি আসে না। আপনার স্ত্রীকে নিয়ে যখন আপনি ঘুরতে বের হন, তখন তার দিকে বাঁকাভাবে তাকালে আপনার খারাপ লাগে। কিন্তু অন্যকে দেখার ক্ষেত্রে কি আমার, আপনার অনুভূতি একই রকম আছে?

তা না হলে বুঝে নিতে হবে, সমস্যা অনেকের মগজেই। হয়তো পরিবেশ-পরিস্থিতির কারণে সবারটা প্রকাশ পায় না। আসুন মানসিকতা পরিবর্তন করি। নারীকে মাথা উঁচু করে বাঁচতে দিই। আর ধর্ষক কোনো পরিচয় বহন করে না। সে কুৎসিত, হয়তো চেহারায় নয়, মানসিকতায়।

এ বিভাগের আরও খবর

আপনার মতামত লিখুন :

Your email address will not be published.