হাসপাতালে ৪৮ ঘণ্টার পর্যবেক্ষণে মমতা

0

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ হাসপাতালে ২৪ ঘন্টার পর্যবেক্ষনে রয়েছে তৃণমূল নেত্রী মমত।  ভোটের প্রচারণার সময় ‘হুড়োহুড়িতে’ পড়ে গিয়ে বাম পায়ের গোড়ালির হাড়ে গুরুতর আঘাত পেয়েছেন পশ্চিমবঙ্গের মুখমন্ত্রী ও তৃণমূল কংগ্রেস নেত্রী মমতা বন্দোপাধ্যয়। তার পায়ের পাতা, ডান হাত, গলা ও ডান পাশের কাঁধেও চোট রয়েছে।

বর্তমানে তিনি এসএসকেএম হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। তাকে ৪৮ ঘণ্টার জন্য পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (১১ মার্চ) তার সিটি স্ক্যান করা হবে। শুক্রবার রাতে এসএসকেএম হাসপাতালের অধিকর্তা ডা. মণিময় বন্দোপাধ্যয় এ তথ্য জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, মুখমন্ত্রীর বেশ কয়েকটি পরীক্ষা করা হয়েছে। এসব পরীক্ষার প্রাথমিক রিপোর্টে তার বাম পায়ের গোড়ালি, পায়ের পাতার হাড়ে গুরুতর চোট রয়েছে। সেখানে রক্ত জমাট বেঁধেছে। আর ডান কাঁধ, ডান হাত ও গলায়ও চোট রয়েছে।

ডা. মণিময় আরও বলেন, ঘটনার পর থেকে মুখ্যমন্ত্রী বুকে ব্যথা এবং শ্বাসকষ্টের সমস্যা অনুভব করছেন। তাকে আগামী ৪৮ ঘণ্টার জন্য নিবিড় পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে। তার সিটি স্ক্যানও করা হবে।

বুধবার নিজের নির্বাচনী আসন নন্দীগ্রামে পড়ে গিয়ে আঘাত পাওয়ার পর মুখ্যমন্ত্রী মমতাকে গ্রিন করিডোর করে নিয়ে আসা হয় এসএসকেএম হাসপাতালে। সেখানে তাকে উডবার্ন ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়। এসএসকেএম হাসপাতালে একাধিক পরীক্ষা ও প্রাথমিক চিকিৎসার দেয়া হয়।

পরে সিদ্ধান্ত হয়- তার এমআরআই করা হবে। এ জন্য বাঙুর ইনস্টিটিউট অব নিউরোসায়েন্সেসে নেয়া হয়। সেখান থেকে এমআরআই শেষ রাত ১টার দিকে আবার এসএসকেএম হাসপাতালের উডবার্ন ওয়ার্ডে আনা হয়।

এদিকে এ ঘটনায় ষড়যন্ত্র রয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দোপাধ্যয়। তিনি সাংবাদিকদের বলেন, ভিড়ের মধ্যে বাইরের চার-পাঁচজন লোক ঢুকে পড়েছিল। তারা আমাকে ধাক্কা মেরে ফেলে দেয়। ওরা ইচ্ছা করে ধাক্কা মেরেছে। এর পেছনে ষড়যন্ত্র ছিল।  খবরঃ আনন্দবাজার পত্রিকা।

সিটি নিউজ/ডিটি

এ বিভাগের আরও খবর

আপনার মতামত লিখুন :

Your email address will not be published.