পটিয়া আইনজীবী সমিতির নির্বাচনে লড়ছেন এড.অরুণ মিত্র

0

সুজিত দত্ত, পটিয়া প্রতিনিধিঃ দক্ষিণ চট্টগ্রামের সাবেক মহকুমা সদর, ব্রিটিশ বিরোধী আন্দোলনে সুতিকাগার, পটিয়া একটি অগ্রসর জনপথ ও প্রধান যোগাযোগ মাধ্যম, ব্যবসা – বাণিজ্য, শিল্প – সাহিত্য, শিক্ষা – সংস্কৃতি, সামাজিক ও রাজনীতিতে রয়েছে এর সমৃদ্ধ ঐতিহ্য।

চট্টগ্রামের পটিয়া পৌর সদর প্রাণ কেন্দ্রে চৌকি আদালতে আইনজীবী সমিতির নির্বাচন জমে উঠেছে। প্রতি বছরে ন্যায় এ বছরও আগামী ৩১ মার্চ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। পটিয়া আইনজীবী সমিতির নির্বাচনে প্রার্থীরা সকাল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত চলছে উন্নয়নে বিভিন্ন প্রতিশ্রুতি দিয়েও ভোটারদের মন জয়ে চেষ্টায়, ভোট প্রার্থনায় প্রচারণায় মহাব্যস্ততম সময় পার করছেন।

চৌকি আদালত এলাকায় ব্যাপক প্রচার – প্রচারনা চোখে পড়ার মতো, ভোটারদের মন জয়ের চেষ্ঠায় ব্যাপক গনসংযোগ চালিয়ে যাচ্ছেন প্রার্থীরা। এ নির্বাচনে সাধারণ সম্পাদক পদে এডভোকেট অরুন কুমার মিএ। বীর মূক্তিযোদ্ধা শহীদ পরিবারে সন্তান।

তিনি দক্ষ, বিনয়ী,নম্রর,ভদ্র, কর্মঠ, পরিশ্রমী, পরিচ্ছন্ন, শান্তির প্রতীক, বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ, বিভিন্ন ধর্মের ধর্মীয় আলোচক ব্যক্তিত্ব, ধর্মীয়নুরাগী, বঙ্গবন্ধুর আর্দশের সৈনিক, মানবতার ফেরিওয়ালা পটিয়ার বাহুলী গ্রামের শহীদ সারাদা চরণ মিত্রের সুযোগ্য সন্তান।

মুক্তিযোদ্ধা শহীদ পরিবারে সন্তান এডভোকেট অরুন কুমার মিএ।তিনি সামাজিক, রাজনৈতিক,সাংস্কৃতিক সহ বিভিন্ন ধর্মীয় সংগঠনে জড়িত। ন্যায়, নীতি, সততার কর্মদক্ষতার আলোকে সাফল্যের সাথে গুরুদায়িত্ব পালন ও শিক্ষা জীবনে পরীক্ষায় অংশ গ্রহণ করে কৃতিত্বে গৌরব অর্জন ও একাধিক পুরস্কার সহ বিভিন্ন পুরস্কারে ভূষিত হন।

এডভোকেট অরুণ কুমার মিত্র বলেন, ভেটাররা স্বত্বর্স্ফুত ও আন্তরিক ভাবে আমাকে গ্রহন ও মাঠ পর্যায়ে আমার অবস্থান খুবই ভালোই।সকল সদস্যবৃন্দদের সাথে হৃদয়ের সুসম্পর্ক।

পটিয়া পৌর ৮ নং ওয়ার্ডে বাহুলী গ্রামের বীর মূক্তিযোদ্ধা শহীদ সারাদা চরণ মিত্রের পুত্র। চৌকি আদালতের উন্নয়ন ও পরিবর্তন করার লক্ষ্যে আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক পদে নির্বাচনে ব্যাপক প্রস্তুতি নিয়েছি। আমি জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও জাতীয় সংসদের হুইপ শামসুল হক চৌধুরী সহ সকল সদস্যবৃন্দ সকলের আশীর্বাদ ও দোয়ায় এ নির্বাচনে নির্বাচিত হয়ে পটিয়া চৌকি আদালতে বিভিন্ন

উন্নয়নের মাধ্যমে ডিজিটালাইজড চৌকি আদালত উপহার দেব। আমি সকলের সুখে – দুঃখে পাশে থাকতে চাই। আশা করি বিপুল ভোটে জয়ের আশাবাদী।নির্বাচন পূর্বে পটিয়া শহীদ স্মৃতিসৌধে, জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি ও ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধে শহীদ বাহুলী গ্রামের স্হিত শহীদ স্মৃতিসৌধে পুস্পার্ঘ্য অপর্ণে মাধ্যমে নির্বাচনী গণসংযোগ শুরু করেছেন বলে তিনি জানান।

সিটি নিউজ/ডিটি

এ বিভাগের আরও খবর

আপনার মতামত লিখুন :

Your email address will not be published.