হিযবুতের চট্টগ্রামের বিশ্ববিদ্যালয় প্রধান সাবকাত গ্রেফতার

0

কারেন্ট টাইমসঃ  চট্টগ্রামে  মহানগরীর কোতয়ালী কাজী নজরুল ইসলাম রোডস্থ কোতয়ালী মোড় জামে মসজিদের দক্ষিন পাশে বাঁশখালী ফার্মেসীর সামনে থেকে নিষিদ্ধ ঘোষিত হিজবুত তাহরীর চট্টগ্রামের বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয় সমূহের প্রধান সাবকাত আহম্মেদকে লিফলেটসহ গ্র্রেফতার করেছে পুলিশের কাউন্টার টেরোরিজম বিভাগ।

সাবকাত আহম্মেদ (২০) এর বাড়ী পটিয়া থানার মোজাফরাবাদ, খরনা ইউনিয়ন। তার পিতার নাম কাওসার আহমদ চৌধুরী।  বর্তমানে-৫নং আরসি চার্চ রোড, ডাউন টাউন সিপিডিএল, থানা-কোতয়ালী এলাকায় তার বসবাস।

তার কাছ থেকে ২০টি “হে মুসলিমগন! নিষ্ঠাবান সামরিক অফিসারদের নিকট দাবি জানান যাতে যালিম হাসিনাকে ক্ষমতা থেকে অপসারন করে খিলাফতে রাশিদাহ্ পুন:প্রতিষ্ঠায় হিযবুত তাহরীর এর নিকট ক্ষমতা হস্তান্তর (নুসরাহ প্রদান) করে” লেখা সহ বিভিন্ন লেখা সম্বলিত লিফলেট, ২৫টি “আওয়ামী-বিএনপি-জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট…কাফির সাম্রাজ্যবাদীদের এই দালাল শাসকগোষ্ঠিকে প্রত্যাখ্যান করুন” লেখা সহ বিভিন্ন লেখা সম্বলিত লিফলেট, ২৯টি “হিযবুত তাহ্রীর-এর নেতৃত্বে খিলাফত রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠাই মুক্তির একমাত্র পথ” লেখা সহ বিভিন্ন লেখা সম্বলিত লিফলেট, ২২টি “বৈষম্যমুলক কোটাব্যবস্থার বাস্তবায়নকারী গনতান্ত্রিক শাসনব্যবস্থা অপসারণের দাবী তুলুন” লেখা সহ বিভিন্ন লেখা সম্বলিত লিফলেট, ১২টি “খিলাফতে রাশিদাহ্ পুন:প্রতিষ্ঠায় হিযবুত তাহরীর-কে নুসরাহ্ প্রদানে নিষ্ঠাবান সামরিক অফিসারদের নিকট জোর দাবী তুলুন” লেখা সহ বিভিন্ন লেখা সম্বলিত লিফলেট, ৮টি “খিলাফত ব্যবস্থা কি মাত্র ত্রিশ বছর টিকে ছিল?” লেখা সহ বিভিন্ন লেখা সম্বলিত তিন পাতার লেকচারশীট, ২০ টি খাকি খাম, ১টি University of creative technology chittagong এর আইডি কার্ড, যাতে তার নাম Sabqat Ahmed, ছবি ও বিভিন্ন বর্ননা আছে, ১টি ছাই রংয়ের ব্যাকপ্যাক, ১টি MI মোবাইল ফোন নং-০১৭০৪৫৬১৪৩১, ১টি NOKIA মোবাইল ফোন নং-০১৬২৬৬২৯৩১০

সোমবার রাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে চট্টগ্রাম কাউন্টার টেরোরিজম বিভাগের পুলিশ কোতয়ালী থানাধীন কবি কাজী নজরুল ইসলাম রোডস্থ কোতয়ালী মোড় জামে মসজিদের দক্ষিন পার্শ্বে বাঁশখালী ফার্মেসীর সামনে থেকে নিষিদ্ধ ঘোষিত হিজবুত তাহরীর বিপুল পরিমান লিফলেটসহ আসামী সাবকাত আহম্মেদকে গ্রেফতার করে।

আসামীকে জিজ্ঞাসাবাদে সে নিজেকে নিষিদ্ধ ঘোষিত হিযবুত তাহরীর চট্টগ্রামের বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয় সমূহের প্রধান হিসেবে পরিচয় দেয় এবং চট্টগ্রাম শহরে বিভিন্ন সময়ে কোর্ট বিল্ডিং, নিউ মার্কেট, লালখান বাজার এলাকায় সে নিজে উপস্থিত থাকিয়া তার দলের অন্যান্য সদস্যদের সাথে নিষিদ্ধ ঘোষিত হিজবুত তাহরীর এর সরকার ও রাষ্ট্র বিরোধী বক্তব্য সম্বলিত পোষ্টার সমূহ লাগায়।

নিষিদ্ধ ঘোষিত হিযবুত তাহরীর এর মাধ্যমে প্রতিষ্ঠিত গনতান্ত্রিক সরকারকে উৎখাত করে শরীয়াহ ও খেলাফত ভিত্তিক শাসন ব্যবস্থা কায়েম করতে চায়। বর্ণিত আসামীসহ পলাতক আসামীগন পরস্পর যোগসাজশে বাংলাদেশ ও জনসাধারণের নিরাপত্তা বিপন্ন করার উদ্দেশ্যে নিষিদ্ধ ঘোষিত সংগঠনের সদস্য ভুক্ত হয়ে সংগঠনের পক্ষে সর্মথন আদায়ের চেষ্টা ইত্যাদির মাধ্যমে সন্ত্রাসী কর্মকান্ডে প্ররোচিত ও লিপ্ত হওয়ায় তার বিরুদ্ধে সন্ত্রাস বিরোধী আইন, ২০০৯(সংশোধনী-২০১৩) এর ৮/৯/১০ ধারায় কোতোয়ালী থানার মামলা দায়ের করা হয়।

এ বিভাগের আরও খবর

Leave A Reply

Your email address will not be published.