খালেদা জিয়ার নামে বিএনপি মানুষ পুড়িয়ে মেরেছেঃ তথ্যমন্ত্রী

0

সিটি নিউজ ডেস্কঃ আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক ও তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, বিএনপি খালেদা জিয়াকে মুক্ত করার নামে যে আন্দোলন করেছে, তা নিজেদের মধ্যে বিশ্বাস আর সমন্বয়হীনতার কারণেই দুর্বল ছিল। এছাড়া আদালতই নির্ধারণ করবেন খালেদা জিয়া মুক্তি পাবেন কি-না। আদালতই এখন তার ভবিষ্যৎ।

শনিবার (৯ ফেব্রুয়ারি) সকালে রাজধানীর মৌচাকে বার্তা সংস্থা ইউএনবি কার্যালয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

ড. হাছান মাহমুদ বলেন, গত ১০ বছরে বিএনপির রাজনীতি খালেদা ও তারেক জিয়াকে অপরাধের বিচারের হাত থেকে বাঁচানো, তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দাবি, নির্বাচন বানচাল করার অপচেষ্টাতেই সীমাবদ্ধ ছিল। জনগণের জন্য কিছু ছিল না। এসব করতে গিয়ে বিএনপি জনগণকে পুড়িয়ে মেরেছে। রাষ্ট্রীয় সম্পদ ধ্বংস করেছে। ফলে ক্রমে ক্রমে জনগণ থেকে দূরে সরে গেছে দলটি।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, বিএনপি খালেদা জিয়াকে মুক্ত করার নামে যে আন্দোলন করেছে তা নিজেদের মধ্যে বিশ্বাস আর সমন্বয়হীনতার কারণেই দুর্বল ছিলো।

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রুহুল কবির রিজভী আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদককে বিএনপির উপদেষ্টা পদ গ্রহণের কথা বলেছেন- এ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, রিজভীর এ ধরণের মন্তব্য কতোটা শালীন, তা ভাবা জরুরি। রিজভী প্রতিদিনই একটা না একটা সংবাদ সম্মেলন করে কথা বলেন, শুধু লাইমলাইটে থাকার জন্য।

এর আগে ইউএনবি’র প্রধান সম্পাদক এনায়েতুল্লাহ খানের সভাপতিত্বে তথ্যমন্ত্রী, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভিসি অধ্যাপক আ আ ম স  আরেফিন সিদ্দিক ও অধ্যাপক সাখাওয়াত আলী খান বক্তব্য রাখেন।

তথ্যমন্ত্রী তার বক্তৃতায় গণমাধ্যমকে সমাজের দর্পণ বলে অভিহিত করে বলেন, ‘বানোয়াট সংবাদ পরিবেশন প্রতিহত করতে সরকার সকল গণমাধ্যমকর্মীদের প্রতি উদাত্ত আহ্বান জানাচ্ছে। কারণ, গণতন্ত্রের জন্যই গণমাধ্যমকে স্বচ্ছ ও নিরাপদ রাখা জরুরি।

এ বিভাগের আরও খবর

Leave A Reply

Your email address will not be published.