রুমার আর্তনাদ

0

জুবায়ের সিদ্দিকীঃ জীবন থাকলেও জীবনের জন্য জমানো সব সঞ্চয় শেষ হয়ে গেল রুমার (৩০)। শিশু থেকে কিশোরী। এরপর জীবন সংগ্রাম। শ্রমের বিনিময়ে সঞ্চয় করেছেন তিনি পরিবারের জন্য। সে সঞ্চয় আগুনে পুড়ে ছাই হয়ে গেল। জীবনের স্বপ্ন যেন আগুনে ঝলসে গেল। নগরীর চাক্তাই ভেড়া মার্কেট বস্তিতে আগুনে পুড়ে নিঃস্ব হলেন রুমা।

জীবনের চলার পথের শেষ সম্বলটুকু হারিয়ে নির্বাক এখন রুমা। কে দিবে এখন রুমাকে সান্তনা। মাত্র ১শ টাকা ভাড়া বস্তিতে ছিলেন রুমা। সঞ্চয় করে ছিলেন প্রায় দেড় লাখ টাকা। ছিল কিছু স্বর্ণ। সারা বছরের সঞ্চয়, জীবনের সঞ্চয়, পাড়ায় পাড়ায় মাছ বিক্রি করে জমানো সঞ্চয় চোখের সামনে ছাই হয়ে গেল।

রুমা বলছিলেন, ভেবেছিলাম মেয়েটাকে বিয়ে দিব, ব্রীজের নীচে ঘর করে থাকবো। সব এখন শেষ। এখন কি করব। কিভাবে মেয়ের বিয়ে দিব। ভবিষ্যৎ আমাকে কে আলো দেখাবে। রুমাদের স্বপ্ন এভাবেই আগুনে পুড়ে ছাই হয়ে যায়। স্বপ্ন যেন স্বপ্নই থেকে যাায়। খোলা আকাশের নীচে রুমাদের ক্রন্দন, আর্তনাদ, আহাজারী কি সভ্য মানুষগুলোকে নাড়া দিবে !

এ বিভাগের আরও খবর

Leave A Reply

Your email address will not be published.